August 13, 2020, 6:08 pm

মাস্ক পরার বাহার

লিপিকা দত্ত সরকার (ভারত) বিশ্বজুড়ে করোনার ত্রাস।মৃত্যুর মিছিল চলেছে জগতের সর্বত্র। ভ্যাকসিন আবিষ্কারের আপ্রাণ চেষ্টা চলছে বিশ্বব্যাপী।কিন্তু এই ভয়াবহ করোনার হাত থেকে নিজেকে এবং অপরের জীবন কে রক্ষা করার জন্য বারবার ঘোষণা করা হচ্ছে কঠোর ভাবে- মাস্ক ব্যবহার করার জন্য।কিন্তু হুউউউউউ, বললেই হলো – আমরা শুনলে তবে তো !!!!!আমাদের নিজেদের একটা স্বাধীন মতামত আছে তো বিস্তারিত

কি নাম দেবো তোমার ?

মৃণাল চৌধুরী সৈকত তুমিই বলো কি নাম দেবো তোমারকি নামে ডাকবো তোমায় ?রুপ আর যৌবনের অহমিকায়তোমার সমস্ত দেহ জুড়েকীটপতঙ্গের নিত্য আনাগোনা ।সমস্ত হৃদয় জুড়ে তোমারলাল, নীল,খয়েরী,সাদা রঙ্গেরবিষাক্ত লাভা ।ভালোবাসা নামক শব্দটিতোমার কাছে শিশুদের পুতুল খেলা ।তাহলে তুমিই বলোকি নাম দেবো তোমার কিংবাকি নামে ডাকবো তোমায় ?একবার কলকাতায় কালী পূজোঁয়বেড়াতে গিয়ে দেখলাম !প্রেমিক তার প্রমিকাকেপ্রেমিকা তার বিস্তারিত

প্রেতাত্বার ধ্বংশ চাই

মৃণাল চৌধুরী সৈকত বাংলার আকাশ আর বাতাসেএখনো যোদ্ধাপরাধীদের প্রেতাত্বা বিরাজমান,ওরা রেখে গেছেঅফুষ্টিত অসংখ্য বিজযা আজ রাজনৈতিক আর ধমর্ভীরুস্বার্থান্বেষিদের দ্বারাপরিফুষ্টিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত এ বাংলায়।একাত্তর পরবর্তী যারাপালিয়েছিলো সোনার বাংলা ছেড়ে,পচাত্তর বা বিরাশির পরবর্তী তারাইস্বৈর-শাসকদের কাঁদে ভর করেঅভিভাবক আর মাতৃ-পিতৃহীনবাংলা ধ্বংশের খেলায়মেতে উঠেছে অর্হনির্শি।আজ সময় এসেছে আমাদেরগনতন্ত্র আর ধর্ম রক্ষার নামেকতিপয় রাজনৈতিক বাহক-ধর্মভীরু কিছু মৌলবাদী দ্বারাআত্বঘাতী কিশোর- কিশোরীরমৃত্যুকে বিস্তারিত

৷৷৷। কি ছিলে আমার।।।।

 গীতা রায়—— তুমি কি ছিলে আমার ?একটা হৃদয় বিদারক দীর্ঘশ্বাস !একটা পুরো জীবন !নাকি একটা ক্ষীণ ইতিহাস ? তুমি কি ছিলে আমার ?একটা অগ্নি পরীক্ষার রাত !একটা জমানো চাপা কষ্ট ?নাকি অস্তগামী সূর্যের রক্তপাত ? তুমি কি ছিলে আমার ?একটা ছন্নছাড়া জীবনের ছাড়পত্র ?একটা সীমাহীন ট্রাজেডি কাব্য!নাকি ছলনার বাস্তব চিত্র ? তুমি কি ছিলে আমার বিস্তারিত

স্বচ্ছ কাচের জানালা

———–তূর্বা খান জানালার ওপাশে তুমি, এপাশে আমি;তোমাকে দেখি পলকহীন মুগ্ধতা নিয়ে,কবিতার ছলে অজস্রবার পাঠাই প্রেমগানে গানে শুনাই হৃদয়ের যত কথা;জানালার ওপাশ থেকে তুমি কেবল হাসো। বৃষ্টি ছুঁয়ার ছলে হাত বাড়িয়ে দেই-কেবল তোমাকে স্পর্শ করবো বলে;বাতাসের কানে কানে চিঠি পাঠাই-সূর্যের কিরণ হয়ে জড়িয়ে ধরি তোমাকে।জানালার ওপাশ থেকে তুমি কেবল হাসো। এক জীবনের তৃষ্ণায় ভালোবাসি তোমাকে,চিৎকার করে বিস্তারিত

কষ্টের কবিতা

…………….মৃণাল চৌধুরী সৈকত আজ এই পৃথিবীটা নীরবসব যেন রয়েছে চুপচাপ,কেবল বাতাস পাতায় পাতায়বিলাপ করে যাচ্ছে অবিরত,আর একজন কিশোর কবিতার হৃদয়ের সমস্ত বেদনার বানীএকের পর এক লিখে যাচ্ছেকোন এক কষ্টের কবিতায়।গভীর রাতে পড়ার টেবিলে বসেকবি, একের পর এক লিখে যাচ্ছে,আমার এ হৃদয় আজ-হৃদয়ের কাছে আর্তচিৎকার করে বলছে,সবাই ঘুমিয়ে থাক-শুধু জেগে থাকবো আমি।আমি জেগে থেকে দেখে যাবোপুর্ণিমার বিস্তারিত

🌧🌧তোর চোখের কাজলে 🌧🌧

🍂🍂 সাম্য 🍂🍂 পারু…পারু…পারু…..নিঃশ্বাস টা আর ধরে রখতে পারলাম না,এই বুঝি মহাকালের ডাকে—স্রোতের অনুকূলে যাচ্ছি হারিয়ে….। দেহত্যাগের পর….তুই আর, পরিত্যক্ত দেহের দিকে-ফিরে তাকাস্ নে।এমন কি শ্মশান ঘাটে,আগুনে জ্বলসে যাওয়া দেহের…ঊর্ধ্বমুখী ধোঁয়ার দিকে…..।।এতে তোর মর্ত্যের সুখ-শান্তি…..বিলাসিতা বিনষ্ট হতে পারে!বিশ্বাস কর তোর এমন টা,আমি চাই নে…পারু….পারু…..পারু…..আমি নেই তাতে কী! তুই রোজ,তোর চোখের কাজলে….নিজেকে সাজিয়ে রাখিস্যদি কখনো খুব বিস্তারিত

অস্পষ্ট স্মৃতি

———-শিখা গুহ রায়, ভারত কাছের মানুষ যখন আঘাত করে,খুব যন্ত্রণায় কষ্টে হৃদয় ভাঙে শব্দহীনঅন্তরে রক্তঝরে অবিরত,শুধু অনুরাগে অনুভবে। মানুষ যতটা যত্ন করে কষ্ট দেয়ঠিক ততটা যত্ন করে যদি ভালবাসতো,তবে ভালবাসার সম্পর্ক গুলোএতো ভেঙ্গে যেত না !! কাছের মানুষ বিশ্বাস ভাঙে–গড়ে স্বপ্নের পাহাড়,এক নিমেষেই ধূ ধূ বালুচর। দুশ্চিন্তার মুহুর্ত গুলোঅতল জলে তলিয়ে যায়হারিয়ে যায় বিক্ষিপ্ত যন্ত্রনার বিস্তারিত

সনেট নির্জন স্টেশনে একদিন

মৃণাল চৌধুরী সৈকত ইজ্জতপুর রেল স্টেশনটা এমনিতেই ছোট্রোতার উপর সন্ধ্যা নামলেই,রঙ্গিন কেরোসিনের বাতি জ্বলে সেখানটায়,চারপাশে সারি সারি আমলকির গাছআর প্লাটফর্মটায় নিঝুম অন্ধকার যেনএমনিতেই ঝুলে ঝুলে দোল খায়।অদুরে, হেমন্তের সাদাকুয়াশার ভিতর দিয়েআউটার সিগন্যালের লাল ঝলমলেআলো-আকাশ প্রদীপের মতো জ্বলছে ।মৃণাল টিকিট কাটতে গিয়ে জানলটঙ্গী যাওয়ার গাড়ী সন্ধ্যে সাতটা চল্লিশে,কিচ্ছু যায় আসে না মৃণালের।তারপর, টিকিট কেটে গাড়ীর অপেক্ষাপ্লাটফর্মটার বিস্তারিত

***একোন সকাল!***

*****সাম্য****** একোন সকাল–রাতের চেয়েও অন্ধকার,চোখের দৃষ্টিতেই-অবলা কিশোরী ধর্ষণের শিকার!(২)সমাজতন্ত্রের আহ্বান দিয়ে–ধনতন্ত্রের যে নীল নকশা আঁক,চিলেকোঠাতে বসে।আমি তার কিছুই জানিনা,কিছুই বুঝিনা —-এমন টা ভাবলে কি করে!(৩)বদমাইশ হারামখোরের সংখ্যা —যত বেশিই হউক,সৎপথের মানুষ গুলো হেরেছে কি—কোন কালে?খুলেদেখ ইতিহাস কি বলে!(৪)সু-বিচার না পেয়ে যে দেশের নির্যাতিতরা —কাঁদে নিভৃত অন্তরালে,হে বৈশাখ নিয়ে এসো—তোমার বুক সঞ্চিত ঈশান অভিশাপ।কাল বৈশাখী ঝড়,সুনামি,জলোচ্ছ্বাস—আঘাত বিস্তারিত



© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com