September 19, 2020, 5:57 am

শ্যালিকার প্রেমে বাধা দেওয়ায় প্রেমিকের ছুরির আঘাতে দুলাভােই খুন, ঘাতক প্রেমিক র‌্যাবের হাতে আটক

শ্যালিকার প্রেমে বাধা দেওয়ায় প্রেমিকের ছুরির আঘাতে দুলাভােই খুন, ঘাতক প্রেমিক র‌্যাবের হাতে আটক

Spread the love

মৃণাল চৌধুরী সৈকত

গত ০২ আগস্ট গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানাধীন পূর্ব চান্দনা এলাকায় শ্যালিকার প্রেমে বাধা দেওয়ায় ভিকটিম মোঃ রুবেল মিয়া(২৫), পিতা-অজ্ঞাত, সাং-কাশিনাথ ঝাড়, থানা-লালমনিরহাট সদর, জেলা-লালমনিরহাট শ্যালিকার প্রেমে বাধা দেওয়ায় ঘাতক প্রেমিক মোঃ আলমগীর ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে হত্যা করে। নিহতের স্ত্রী মোসাঃ শাফি (২২) বাদী হয়ে গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানায় মোঃ আসিফ হায়দার @আলমগীর (২৫), পিতা-মোঃ জাকারিয়া, মাতা-রাশিদা বেগম, সাং-নারায়নপুর ইচাখিলা, থানা-ঈম্বরগঞ্জ, জেলা – ময়মনসিংহকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা রুজু করে, যার নম্বর-০৫ তারিখ ০৫/০৮/২০২০ ইং, ধারা-৩০২ পেনাল কোড। হত্যাকান্ডের প্রেক্ষিতে তাৎক্ষনিকভাবে হত্যাকারীকে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ এর চৌকস তদন্ত দল দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করেন এবং র‌্যাবের সোর্স নিয়োগসহ সকল ধরনের গোয়েন্দা কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করে।

০৭ আগস্ট ২০২০ র‌্যাব-১, গাজীপুরের একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে, গাজীপুর মহানগরীর, বাসন থানার মামলা নং-০৫, তারিখ ০৫/০৮/২০২০ খ্রিঃ ধারা-৩০২ পেনাল কোড এর প্রধান পলাতক আসামী রাজধানীর মিরপুর এলাকায় অবস্থান করিতেছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অত্র কোম্পানীর কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন, (জি), বিএন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ রাজধানীর মিরপুর কালশী মোড় এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানকালে উপরোক্ত হত্যা মামলার প্রধান আসামী ১। মোঃ আসিফ হায়দার@আলমগীর(২৫), পিতা-মোঃ জাকারিয়া, মাতা-রাশিদা বেগম, সাং-নারায়নপুর ইচাখিলা, থানা-ঈম্বরগঞ্জ, জেলা-ময়মনসিংহ, এ/পি- মানিকদি কাজীবাড়ী, থানা-ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট, ডিএমপি, ঢাকা’কে গ্রেফতার করা হয় এবং ধৃত আসামী এই হত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দেয়।

আসামীর দেওয়া ভাষ্যমতে, উক্ত আসামী পেশায় একজন পিকআপ চালক। গত আট মাস আগে নিহত ভিকটিম রুবেল মিয়ার শ্যালিকার সাথে তার মোবাইল ফোনে পরিচয় হয়। উক্ত পরিচয়ের সূত্রধরে একপর্যায়ে তাদের দ্জুনের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ভিকটিম রুবেল তার শ্যালিকার প্রেমিক আলমগীর সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারে যে, আলমগীর একজন মাদক সেবনকারী ও খুইব ঊশৃংখল প্রকৃতির। ঘাতক আলমগীর মাদক সেবনকারী ও খারাপ প্রকৃতির লোক বলে নিহত ভিকটিম রুবেল ঘাতক আলমগীর এর সাথে তার শ্যালিকার সম্পর্ক মেনে নিতে না পারায় গত ১৫ দিন আগে ভিকটিম রুবেল মিয়া ঘাতক আলমগীর কে তার শ্যালিকার সাথে কোন ধরনের যোগাযোগ/সম্পর্ক রাখতে নিষেধ করেন। এতে ঘাতক আলমগীর ভিকটিম রুবেল এর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং তাকে হত্যা করে তার প্রেমিকাকে তুলে নেওয়া হুমকি দেয়। এরই ধারাবাহিকতায় ধৃত আসামীর পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে গত ০২-০৮-২০২০ তারিখ রাত অনুমান ০৮.৩০ ঘটিকার সময় ঘাতক আলমগীর গাজীপুরে আসে এবং গাজীপুরে আসার সময় রাজধানীর উত্তরাস্থ জসিম উদ্দিন এলাকা হতে ০১টি ধাড়ালো ছুরি কিনে তার সাথে রাখে। একই দিন অনুমান রাত ০৯.৩৫ ঘটিকার সময় গাজীপুরে পৌছে এবং প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য ভিকটিম রুবেল মিয়ার বাসায় ফেরার পথে ওত পেতে থাকে, ভিকটিম রুবেল মিয়া প্রতিদিনের ন্যায় তার ভাড়ায় চালিত অটোরিক্সা গ্যারেজে জমা দিয়ে বাসায় ফেরার জন্য রওনা হয়। ভিকটিম বাসায় ফেরার পথে রাত অনুমান ১০.১৫ ঘটিকার দিকে খুনী মোঃ আসিফ হায়দার@আলমগীর তার পথ রোধ করে এবং তাদের দুজনের মাঝে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আসামীর সাথে থাকা ধাড়ালো ছুরি দ্বারা ভিকটিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ভিকটিম রুবেল এর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে তার চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয় এবং চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ০৪/০৮/২০২০ তারিখ সকাল অনুমান ১১.৩০ ঘটিকার সময় ভিকটিম রুবেল মারা যায়। পরদিন অর্থ্যাৎ গত ০৫/০৮/২০২০ তারিখ ভিকটিমের স্ত্রী বাদী হয়ে গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানায় এই সংক্রান্তে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে, যার প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১ এর একটি চৌকস তদন্ত দল দ্রুততার সাথে ছায়া তদন্ত শুরু করেন এবং হত্যাকারীকে গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে অবশেষে অদ্য ০৭/০৮/২০২০ তারিখ অনুমান ১১.৩০ ঘটিকার সময় খুনী আলমগীরকে রাজধানীর মিরপুর এলাকা হতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। উদ্বারকৃত আলামত ও গ্রেফতারকৃত আসামীকে থানায় হস্তান্তরের ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com