শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০৩:৪১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার ছাড়াল মৃত্যুপুরী ইতালিতে আজও ৭৬৬ প্রাণহানি শুধু নিউইয়র্কেই একদিনে ৫৬২ মৃত্যু দিল্লির তাবলিগ জামাত থেকে দুইদিনে ৬৪৭ জন আক্রান্ত বেলজিয়ামে প্রথম ৩ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত ব্রিটেনে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৬৮৪ জনের প্রাণ কাড়ল করোনা মমতা জাদুতে পশ্চিমবঙ্গে মৃতের সংখ্যা কমল? পুলিশের এক মাসের রেশন পাচ্ছেন গাজীপুরের হতদরিদ্ররা ৬০ হাজার পরিবারকে খাবার দিলেন গাজীপুর সিটি মেয়র গভীর রাতে ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিলেন প্রতিমন্ত্রী রাসেল ৯টি ট্রাকে করে বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিলেন সাবেক এমপি ইতালিফেরত বোনের বাড়ি থেকে ফিরে জ্বর-কাশি, বাড়ি লকডাউন শেরপুরে করোনা প্রতিরোধে মোবাইল কোর্টের অভিযানে ২৪ টি মামলায় ৪৬,৫০০ টাকা অর্থদন্ড রাতে দুই কিলোমিটার হেঁটে দরিদ্রদের জন্য খাবার নিয়ে গেলেন ইউএনও আকাশ থেকে খুলে বাড়ির ওপর পড়ল হেলিকপ্টারের দরজা করোনা প্রণোদনায় উপেক্ষিত স্থানীয় উদ্যোক্তারা শ্রমিকের বেতন দিতে বিনা সুদে ঋণ পাবে রফতানি প্রতিষ্ঠান করোনায় পোল্ট্রি ও ডেইরি শিল্পে ক্ষতি দুই হাজার ৬২ কোটি টাকা পোশাকশিল্পে ৩ বিলিয়ন ডলারের রফতানি আদেশ বাতিল সন্ধ্যা পর্যন্ত তিন গ্রুপে মোবাইলে স্বাস্থ্যসেবা দেবে ড্যাব
ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন, কিছুক্ষণের মধ্যেই খালেদার মুক্তি

ফাইলে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন, কিছুক্ষণের মধ্যেই খালেদার মুক্তি

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ড ৬ মাস স্থগিত করে মুক্তির ফাইল অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই কিছুক্ষণের মধ্যেই মুক্তি পাচ্ছেন খালেদা জিয়া।

বুধবার (২৫ মার্চ) সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দুই বছর ২ মাস ধরে কারাগারে বন্দি অবস্থায় আছেন। তিনি দুটি মামলায় দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে কারাগারে ছিলেন। তার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারের ব্যক্তিগত রিকোয়েস্ট এবং তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এটা কনসিডার করা যায় কি না, সেটা আমরা আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছিলাম। আইন মন্ত্রণালয়ের ভেটিং হয়ে যখন আসে তখন আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে নির্দেশনা চাই।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তার (খালেদা জিয়া) ছোট ভাই এবং বোনের স্বামী ব্যক্তিগতভাবে তার জন্য আবেদন করেন। প্রধানমন্ত্রী যে মানবতার নেতা, তাকে যে মাদার অব হিউম্যানিটি বলা হয়, সেটা তিনি আবার প্রমাণ করলেন। সমস্ত কিছু উপেক্ষা করে আজকে দণ্ড স্থগিত করে তাকে বের করার নির্দেশনা (এ সংক্রান্ত ফাইল অনুমোদন) আমাদের দিয়েছেন। সেই নির্দেশনা কিছুক্ষণের মধ্যে কার্যকর হতে যাচ্ছে।’

‘আপনারা এও জানেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসনের পুত্র যখন মৃত্যুবরণ করেছিলেন। তাকে সমবেদনার জন্য গিয়েছিলেন দৌড়ে, সেদিন তিনি তার গেটটিও খোলার প্রয়োজন মনে করেননি। এও আপনারা দেখেছেন যেখানে তার (শেখ হাসিনা) সবচেয়ে বেশি রক্তক্ষরণ সেই ১৫ আগস্ট বিএনপির চেয়ারপারসন তার জন্মদিন পালন করতেন। এই সবকিছু তিনি ভুলে গিয়ে তার ভাই, বোন, বোনের স্বামীর আবেদন-নিবেদনের প্রেক্ষিতে আজকে তিনি (প্রধানমন্ত্রী) সেই আদেশটি আমাদের হাতে পাঠিয়ে দিয়েছেন। আমরা কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই আদেশটি কার্যকর করতে যাচ্ছি।’

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘আইনের কিছু জটিলতা আছে তাই দুটি শর্তে তাকে চিকিৎসা সেবার জন্য তার ছোট ভাইয়ের জিম্মায় ৬ মাসের জন্য তাকে মুক্তি দেয়া হল।’

দুটি শর্ত তুলে ধরে মন্ত্রী বলেন, ‘তিনি ঢাকাস্থ নিজ বাসায় চিকিৎসাসেবা গ্রহণ করবেন এবং এ সময়ে তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না।’

ইতোমধ্যে সাজা স্থগিতের আদেশ হয়ে গেছে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এখন আইজি প্রিজন (কারা মহাপরিদর্শক) রয়েছেন বাকি কাজটা তিনি করবেন।’

এ সময়ে তিনি রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে অংশ নিতে পারবেন কিনা- দেখুন রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড তিনি করবেন কেন? তিনি তো এখনও সাজাপ্রাপ্ত, দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত ব্যক্তি। ৬ মাসের জন্য তার দণ্ড স্থগিত করা হয়েছে।

দুটি শর্ত ভঙ্গ করলে তাকে আবার জেলে যেতে হবে কি না- জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘এটা তো বলার অপেক্ষা রাখে না।’

গতকাল মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) বিকেলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকে জানান, বর্তমান পরিস্থিতিতে (করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট) সরকার তার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তার সাজা ছয় মাসের জন্য স্থগিত থাকবে। তিনি বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন এবং বিদেশ যেতে পারবেন না, এমন শর্তে এই সাজা স্থগিত থাকবে।

আইন মন্ত্রণালয়ের এ সংক্রান্ত সুপারিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গেলে সেখানে বিএনপি প্রধানের কারামুক্তির প্রক্রিয়া শুরু হয়। সর্বশেষ তা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যায়। ফাইলে প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দেয়ায় শিগগির মুক্তি পেতে চলেছেন খালেদা জিয়া।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫ নম্বর বিশেষ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান। রায় ঘোষণার পর খালেদাকে পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি রাখা হয়। এরপর ৩০ অক্টোবর এই মামলায় আপিলে তার আরও পাঁচ বছরের সাজা বাড়িয়ে ১০ বছর করেন হাইকোর্ট।

একই বছরের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন একই আদালত। রায়ে ৭ বছরের কারাদণ্ড ছাড়াও খালেদা জিয়াকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন।

পরে কারান্তরীণ অবস্থায়ই চিকিৎসার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে নেয়া হয় খালেদা জিয়াকে। প্রয়োজনীয় পরীক্ষা শেষে তাকে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়। এভাবে কয়েক দফায় তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে এবং হাসপাতাল থেকে কারাগারে নেয়া হয়। সবশেষ গত বছরের ১ এপ্রিল তাকে তৃতীয় দফায় হাসপাতালটিতে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালের ৬২১ নম্বর কেবিনে চিকিৎসাধীন।

মামলা দু’টি ষড়যন্ত্রমূলক বলার পাশাপাশি বিএনপি নেতারা খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য মুক্তির দাবি জানিয়ে আসছিলেন। এক্ষেত্রে তারা আদালতেও আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন। কিন্তু বরাবরই বিফল হতে হয়েছে বিএনপির নেতৃত্বকে।

এর মধ্যে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিলে বিএনপি নেতারা খালেদার মুক্তির জোর দাবি তোলেন। বিশ্বজুড়ে যে চিত্র দেখা যাচ্ছে, তাতে করোনাভাইরাসে ৬০ বছরের বেশি বয়সী মানুষের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। সেজন্য ৭৫ বছর বয়সী খালেদা জিয়াকে এখনই মুক্তি দেয়া প্রয়োজন বলে মতামত দেন তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com