শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০১:৩৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু সাড়ে ৬ হাজার ছাড়াল মৃত্যুপুরী ইতালিতে আজও ৭৬৬ প্রাণহানি শুধু নিউইয়র্কেই একদিনে ৫৬২ মৃত্যু দিল্লির তাবলিগ জামাত থেকে দুইদিনে ৬৪৭ জন আক্রান্ত বেলজিয়ামে প্রথম ৩ বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত ব্রিটেনে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৬৮৪ জনের প্রাণ কাড়ল করোনা মমতা জাদুতে পশ্চিমবঙ্গে মৃতের সংখ্যা কমল? পুলিশের এক মাসের রেশন পাচ্ছেন গাজীপুরের হতদরিদ্ররা ৬০ হাজার পরিবারকে খাবার দিলেন গাজীপুর সিটি মেয়র গভীর রাতে ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিলেন প্রতিমন্ত্রী রাসেল ৯টি ট্রাকে করে বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দিলেন সাবেক এমপি ইতালিফেরত বোনের বাড়ি থেকে ফিরে জ্বর-কাশি, বাড়ি লকডাউন শেরপুরে করোনা প্রতিরোধে মোবাইল কোর্টের অভিযানে ২৪ টি মামলায় ৪৬,৫০০ টাকা অর্থদন্ড রাতে দুই কিলোমিটার হেঁটে দরিদ্রদের জন্য খাবার নিয়ে গেলেন ইউএনও আকাশ থেকে খুলে বাড়ির ওপর পড়ল হেলিকপ্টারের দরজা করোনা প্রণোদনায় উপেক্ষিত স্থানীয় উদ্যোক্তারা শ্রমিকের বেতন দিতে বিনা সুদে ঋণ পাবে রফতানি প্রতিষ্ঠান করোনায় পোল্ট্রি ও ডেইরি শিল্পে ক্ষতি দুই হাজার ৬২ কোটি টাকা পোশাকশিল্পে ৩ বিলিয়ন ডলারের রফতানি আদেশ বাতিল সন্ধ্যা পর্যন্ত তিন গ্রুপে মোবাইলে স্বাস্থ্যসেবা দেবে ড্যাব
এএফপির বিশ্লেষণ …….. করোনার চাপে সংঘাত বাড়ার আশঙ্কা বিশ্বে

এএফপির বিশ্লেষণ …….. করোনার চাপে সংঘাত বাড়ার আশঙ্কা বিশ্বে

Spread the love

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

নভেল করোনাভাইরাস বা কভিড-১৯ এখন বৈশ্বিক ত্রাসের নাম। প্রাণঘাতী এই অদৃশ্য শত্রু মোকাবিলা করতেই হিমশিম বিশ্ব। এই সংকটকালে বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলে চলমান সশস্ত্র গোষ্ঠী ও সরকারের মধ্যে সংঘাত তীব্র থেকে আরও তীব্রতর হবে নাকি প্রশমিত হবে, সেই প্রশ্ন সামনে এসেছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস সংকট, বৈশ্বিক কূটনীতি ও রাজনীতি নিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি একটি বিশ্লেষণ করেছে। সেখানে উঠে এসেছে, বিশ্বের সংঘাতময় অঞ্চল, যেমন- সিরিয়া, লিবিয়া, ইয়েমেন, আফগানিস্তান এবং আফ্রিকার সাহেল অঞ্চলের সশস্ত্র বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো করোনা পরিস্থিতির ওপর সজাগ দৃষ্টি রাখছে। জাতিসংঘের কূটনীতিকরা বলছেন, করোনা মহামারির মধ্যে ওই অঞ্চলগুলোতে আরও বেশি সংঘাতের ঝুঁকি রয়েছে।

ফ্রান্সের ইনস্টিটিউট অব পলিটিক্যাল স্টাডিসের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ বার্ট্রান্ড বাডাই বলেন, গেরিলা যোদ্ধা এবং চরমপন্থিদের কাছে পরিস্কারভাবে এটি সৃষ্টিকর্তার আশীর্বাদ। তিনি বলেন, ক্ষমতাশালী যখন শক্তিহীন হয়ে পড়ে, তখন দুর্বলরাও সবলদের ওপর বদলা নিতে পারে। কারণ তখন তারা তাদের কর্মকাণ্ড আরও বিস্তৃত করার সুযোগ পায়। সম্প্রতি আফ্রিকার দেশ মালির উত্তরাঞ্চলে হামলায় দেশটির ৩০ সেনা নিহত হন। এ ঘটনার জন্য উগ্র ইসলামপন্থিদের দায়ী করে দেশটি। তবে এ হামলার বিষয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পক্ষ থেকে শক্ত কোনো প্রতিক্রিয়া আসেনি। যদিও আগে এ ধরনের ঘটনায় তারা তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি দিত। করোনাভাইরাস বৈশ্বিকভাবে ছড়িয়ে পড়ার আগে লিবিয়া ও সিরিয়ার ইদলিব অঞ্চলে চলমান সংঘাত বিশ্ববাসীর নজরে ছিল। কূটনীতিকদেরও মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দু ছিল ওই অঞ্চলগুলো। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারি আকার নেওয়ায় সংঘাতের বিষয় চাপা পড়ে গেছে।

এদিকে ইদলিব ও সিরিয়ায় করোনাভাইরাসের বিধ্বংসী প্রভাব ঠেকাতে সব পক্ষকে সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘের পলিটিক্যাল অ্যাফেয়ার্সের আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল রোজমেরি ডিকার্লো। টুইটার বার্তায় তিনি এ আহ্বান জানান।

ইয়েমেনে জাতিসংঘের বিশেষ দূত মার্টিন গ্রিফিথসও একই কথা বলেছেন। তিনি বলেন, বিশ্ব এখন একটি মহামারির বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। এমন সময় সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলোর সংঘাত বন্ধ করা জরুরি। কারণ তাদের সংঘাতের ফলে মানুষ কঠিন ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে। এই ঝুঁকি এড়াতেই তাদের সংযত হওয়া উচিত।

বিশ্লেষকরা বলছেন, যদিও এখন পর্যন্ত ওই অঞ্চলে করোনাভাইরাস ছড়ায়নি। কিন্তু এই ভাইরাস শক্তিশালী। একটা সময় সেটি দরিদ্র এবং সংঘাতময় দেশগুলোতেও ছড়াবে। এবং তার প্রভাব হবে বিধ্বংসী। সেখানে সম্মিলিত সহায়তার অভাবে লাখ লাখ মানুষ প্রাণ হারাতে পারে বলে আশঙ্কা করছে জাতিসংঘ।

একজন কূটনীতিক বলেছেন, এই মহামারি যুদ্ধে লিপ্ত বিশেষ কোনো গোষ্ঠীর জন্য উপকারী নয়। কারণ প্রাণঘাতী এই রোগটি নিয়ন্ত্রণের অসাধ্য। তিনি বলেন, এই ভাইরাসের কারণে মানবিক বিপর্যয় বাড়তে পারে। ফলে সংঘাতও বাড়তে পারে। তবে কিছু বিশেষজ্ঞ বলছেন, এই মহামারি উগ্র গোষ্ঠীগুলোর প্রাণশক্তি এবং আগামীতে তাদের যুদ্ধ করার সক্ষমতা নষ্ট করে দিতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com