June 1, 2020, 9:36 am

News Headline :
বাসায় ফিরতে ভোগান্তি: রাজধানীতে ভাড়ায় চলছে দামি গাড়ি গণপরিবহনের বর্ধিত ভাড়া কমাতে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ‘মুসলিম ভিলেজ’ গড়ার পরিকল্পনা করছিল আনসার আল ইসলাম বাসের ভাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে ২ জুন বামজোটের বিক্ষোভ জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে গাবতলীর কাগইলে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালিত গাবতলীর বাগবাড়ীতে জিয়ার ৩৯তম শাহাদত বার্ষিকীতে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত টঙ্গী পশ্চিম থানার এসআই হাসান কি আইনের উর্দ্ধে ? প্রশ্ন এলাকাবাসীর ?? টঙ্গীতে শোকের ছায়া অধ্যাপক একেএম ফারুক করোনা আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এক শ্রমিক নিহত সিরাজগঞ্জে জিয়াউর রহমানের ৩৯ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত
শীর্ষে উঠে এলো ওষুধ

শীর্ষে উঠে এলো ওষুধ

Spread the love

পতনের ধারা কাটিয়ে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছে দেশের শেয়ারবাজার। গত সপ্তাহের পাঁচ কর্যদিবসের মধ্যে চার কর্যদিবসই ঊর্ধ্বমুখী ছিল শেয়ারবাজার। সপ্তাহজুড়ে মূল্যসূচক বাড়ার পাশাপাশি বাড়ে লেনদেনের পরিমাণ। এই লেনদেন বাড়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে ওষুধ ও রসায়ন খাত।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত সপ্তাহজুড়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ২ হাজার ২০২ কোটি ২৩ লাখ ৯ হাজার ৪৫৫ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। এর মধ্যে ওষুধ ও রসায়ন খাতের কোম্পানিগুলোর শেয়ার লেনদেনের পরিমাণ ২৯৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ১৪ শতাংশ। স্বাভাবিকভাবেই এ খাতটি লেনদেনের শীর্ষ স্থানটি দখল করেছে।

দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্রকৌশল খাত। সপ্তাহজুড়ে এ খাতের কোম্পানিগুলোর ২৩২ কোটি ৫৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ১১ শতাংশ। আর গত সপ্তাহের আগের সপ্তাহে শীর্ষ স্থানে থাকা বীমা খাত দুই দাপ নেমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। সপ্তাহজুড়ে এ খাতের কোম্পানিগুলোর শেয়ার লেনদেন হয় ২২৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা, যা ডিএসইর মোট লেনদেনের ১০ শতাংশ।

অন্য খাতের মধ্যে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের ১৮৮ কোটি ৫৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা, বস্ত্রের ১৮১ কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার, মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৮০ কোটি ৬ লাখ, বিবিধের ১৭১ কোটি ৬৬ লাখ, ব্যাংকের ১৩০ কোটি ২২ লাখ ৫০ হাজার, চামড়ার ১৩২ কোটি ২৯ লাখ ৫০ হাজার, তথ্যপ্রযুক্তির ৭৬ কোটি ৩৩ লাখ, খাদ্যের ৭৫ কোটি ২৫ লাখ, সিরামিকের ৮৪ কোটি ৭৮ লাখ, টেলিযোগাযোগের ৫১ কোটি ৬৪ লাখ ৫০ হাজার, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ৩৯ কোটি ১১ লাখ, সিমেন্টের ১৯ কোটি ১৯ লাখ ৫০ হাজার, ভ্রমণ-অবকাশের ২৪ কোটি ৯১ লাখ ৫০ হাজার এবং সেবা খাতের ১৭ কোটি ৫০ লাখ ৫০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com