বৃহস্পতিবার, ২০ Jun ২০১৯, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
এখনো আইসিইউতে কণ্ঠশিল্পী অভি পুকুর চুরি থেকে ‘বালিশ চুরি’ বায়িং হাউজগুলোকে নিবন্ধনের নির্দেশ নীলফামারীর সৈয়দপুরে রেলওয়ের ভবন গায়েব মাদকের মায়াজালে কি আটকা পড়ছে পুলিশ টঙ্গীতে কথিত ওয়ার্ড যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে গৃহবধুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা কিশোরগঞ্জের গোপদিঘীর এক ঘৃণিত প্রতারক আল আমিন মানুষের কল্যাণে সততা নিয়ে কাজ করে চলেছেন তানভীর আহমেদ হায়দার আবারো পতনের ধারায় পুঁজিবাজার বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলার জারি বিনিয়োগের শর্ত শিথিল পুঁজিবাজারে ব্যাংকের রপ্তানি বাড়ছে শুকনো খাবারের জমে উঠেছে অনলাইন কেনাকাটা বাংলাদেশে তৈরি হবে মিতসুবিশি গাড়ি যে দেশে মালির বেতন ৬৩ হাজার; রানী-রাজার খবর নাই বেপরোয়া রোহিঙ্গা ইঞ্জিন ও পাওয়ার কার সঙ্কট ঈদে রেলযাত্রায় বিড়ম্বনা বাড়াতে পারে যানবাহনের মেয়াদোত্তীর্ণ সিলিন্ডার রাজপথে বাড়াচ্ছে প্রাণহানির ঝুঁকি কৃষক কাঁদছে, পুড়ছে ধান! টিকেট পেতে ভোগান্তি
কিশোরগঞ্জের গোপদিঘীর এক ঘৃণিত প্রতারক আল আমিন

কিশোরগঞ্জের গোপদিঘীর এক ঘৃণিত প্রতারক আল আমিন

Spread the love
  • একের পর এক প্রেমের জালে ফেলে
  • মেয়েদের সর্বস্ব লুট করাই যার নেশা
  • প্রতারিত নারী সুরমা আজ গৃহছাড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : মো. আল আমিন। সুদর্শন, শিক্ষিত এই যুবকের বাড়ি কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানার গোপদিঘী গ্রামে। মো. সালাহউদ্দিন ও নেশাত বানু দম্পত্তির ১০ ছেলেমেয়ের মধ্যে তৃতীয় সন্তান মো. আল আমিন। ১৯৯৭ সালে প্রেমের ফাঁদে ফেলে একই জেলার ভৈরব থানার কালিপুর গ্রামের মো. সিদ্দিকুর রহমান ও দিলরুবা বেগমের দ্বিতীয় কন্যা সুরমা আক্তারকে। সুরমাকে ২৫/৪/৯৭ইং ফুসলিয়ে সিলেট নিয়ে যায় প্রতারক আল আমিন। সেখানে পরিবারের অজান্তে সুরমাকে কাজি অফিসে নামমাত্র বিশ হাজার টাকা দেনমোহরে বিয়ে করে। পরবর্তীতে উভয়ের পরিবার ঘটনাটি মেনেও নেয়। কিন্তু থেমে থাকেনি আল আমিনের প্রেম। বিয়ের পরেও একাধিক মেয়ের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ধীরে ধীরে প্রকাশ পেতে থাকে। স্ত্রী সুরমা বিষয়টি প্রতিবাদ করলে, নেমে আসে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। এক পর্যায় শ্বশুর বাড়ীতেও সকলেই সুরমার গায়ে হাত তোলে। বাধ্য হয়ে সুরমা নিজ বাড়িতে বাবা মায়ের কাছে চলে আসে। আর তখনই সুরমা জানতে পারে আরও একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা। সুরমার আপন বড় বোন রতœা আক্তারের সাথেও তার স্বামী আল আমিনের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এমনকি আল আমিন রতœাকে গোপনে বিয়েও করেছে বলে জানতে পারে সুরমা। স্বামীর কাছে ঘটনাটি সম্পর্কে জানতে চাইলে, নির্যাতনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয় আল আমিন। এ অবস্থায় উভয় পরিবারকে বিষয়টি জানালেও কোন সমাধান পাননি সুরমা। নিরূপায় সুরমা তখন স্থানীয় প্রশাসন ও থানাকে বিষয়টি জানালে তারা এলাকার চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে ঘটনাটি জানাতে বলেন। তখন চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে বিষয়টি অবগতি করেন সুরমা। কিন্তু বিধিবাম। স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বারও সুরমাকে সঠিক কোন বিচার দিতে পারেননি। এদিকে বাড়তে থাকে সুরমার ওপর নির্যাতনের মাত্রা। শ্বশুর বাড়ি থেকে শুরু হওয়া নির্যাতন যখন নিজ বাড়ির আপন বড় বোনও শুরু করে, তখন বাধ্য হয় সুরমা বাড়ি ছাড়তে। আশ্রয় নেয় ঢাকার সাভারে। গার্মেন্টসে কাজ দিয়ে শুরু হয় একাকী সুরমার জীবন সংগ্রাম। ভেবেছিল, স্বামী আল আমিন তার ভুল বুঝতে পেরে ফিরে আসবে। কিন্তু আল আমিন ফিরে তো আসেনি, বরং সুরমাকে তালাক দেওয়ার জন্য উভয় পরিবার থেকে হুমকি ছিল নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার। বাধ্য হয়ে ২০১৭ সালের ১ এপ্রিল স্থানীয় কাজী অফিস থেকে নিজ স্বামী মো. আল আমিনকে তালাকনামা পাঠাতে বাধ্য হয় সুরমা।
আজও চলছে সুরমার জীবন সংগ্রাম। স্বামী, সংসার, নিজ পরিবার থাকা সত্তে¡ও আজ সুরমার পাশে নেই কেউ। কিন্তু আল আমিন। দিব্যি চালিয়ে যাচ্ছে তার প্রেমের খেলা, আর একের পর এক মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নি:স্ব করে চলেছে তাদের। আর কোন মেয়ে যেন তার মতো ভুল না করে, এটাই সুরমার একমাত্র আশা।
চোখ রাখুন ‘জনতার বাংলা’র পরবর্তী সংখ্যায়। আল আমিনের আরও চমকপ্রদ কাহিনী থাকবে পাঠকদের জন্য।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com