সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ০৪:২১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
জার্মানি আ:লীগের নতুন সভাপতি সাবু, সা: সম্পাদক আব্বাস গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকা হতে অজ্ঞান পার্টির ০৪(চার) জন গ্রেফতার গাজীপুর হতে মলম/অজ্ঞান পার্টির চক্রের ০২(দুই) জন সদস্য’ গ্রেফতার সাবেক তথ্যমন্ত্রী মিজানুর রহমান শেলী আর নেই এতিমের হকের চামড়ার মুনাফা কার পকেটে? প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গাবতলীতে বখাটেদের রামদা কোপে পিতাকে আহত করায় গ্রেফতারের দাবীতে আ’লীগের মানববন্ধন গাবতলী কাগইল ইউনিয়নে দুস্থদের মাঝে ভিজিএফ চাল বিতরণ ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ এটিএম বুথে নিরাপত্তাকর্মী খুন ২৬টি মোটরসাইকেলসহ ছিনতাই হওয়া কাভার্ডভ্যান উদ্ধার পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি, ভোগান্তিতে যাত্রীরা কাশ্মীর ইস্যুতে সতর্ক করলেন র‌্যাব ডিজি ‘শিডিউল বিপর্যয়ের চক্রে’ ট্রেন বৃষ্টির সঙ্গে ট্রেনের বিলম্ব, সীমাহীন ভোগান্তি ঘরমুখোদের উত্তপ্ত কাশ্মীরে সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত ৬ বঙ্গমাতার ৮৯তম জন্মবার্ষিকী আজ দুই জাপানি নাগরিকের কোমরে মিলল ১২ কেজি স্বর্ণ রাজধানীতে ঈদ জামাতের সময়সূচি নিম্নচাপটি ভারতের ঝাড়খণ্ডে অবস্থান করছে হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ
সাংবাদিকসহ আহত-৫ \ গাড়ি ভাংচুর টঙ্গীর কাদেরিয়ায় টেন্ডার শিডিউল জমাদানের সময় সন্ত্রাসীদের হামলা

সাংবাদিকসহ আহত-৫ \ গাড়ি ভাংচুর টঙ্গীর কাদেরিয়ায় টেন্ডার শিডিউল জমাদানের সময় সন্ত্রাসীদের হামলা

Spread the love

মৃণাল চৌধুরী সৈকত, টঙ্গী

টঙ্গীর কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড এর ভবনসহ মেশিনপত্র ও পরিত্যক্ত মালামাল সংক্রান্ত টেন্ডার জমাদানের সময় স্থাানীয় চিহ্নিত ও নামধারী সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয়েছে সাধারণ ব্যবসায়ীরা। এসময় সন্ত্রাসীরা পুলিশের সামনেই স্থাানীয় ৩ সাংবাদিকসহ ৫ জনকে পিটিয়ে আহতসহ গাড়ী ভাংচুর করেছে।

সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার ব্যবসায়ীরা জানান, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস লিঃ এর আওতাধীন টঙ্গীর কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলস লিমিটেড কারখানার পরিত্যক্ত মালামাল ও ভবন অপসারনের টেন্ডার শিডিউল জমা দিতে গিয়ে সন্ত্রাসীদের বাধার মুখে পড়েন ব্যবসায়ীরা। একপর্যায়ে কারখানায় রক্ষিত বক্সে শিডিউল জমা দিতে গেলে যুবলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন মোল্লার নেতৃত্বে সাইদুল মৃধা, শীর্ষ সন্ত্রাসী বিল্লাল হোসেন, রাজু ওরফে ইয়াবা রাজু, বিল্লাল মিয়াসহ অর্ধশতাধিক সশস্ত্র সন্ত্রাসী ঠিকাদার ব্যবসায়ী ও তাদের প্রতিনিধিদের উপর হামলা চালায়। এসময় ঘটনাস্থালে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের ওসি (অপারেশন) সহিদুর রহমানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সদস্য উপস্থিাত থাকলেও রহস্যজনক কারণে তারা নিরব ভ‚মিকা পালন করেন। হামলার সময় স্থাানীয় সাংবাদিকরা সন্ত্রাসীদের ছবি তুলতে গেলে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে দৈনিক প্রতিদিনের সংবাদের টঙ্গী প্রতিনিধি নাঈমুল হাসান, সংবাদ মোহনা পত্রিকার প্রতিনিধি জহিরুল ইসলাম লিটন, দৈনিক ঢাকার ডাকের প্রতিনিধি মো. রাজীব হাসান ও ইউনুছ মিয়াকে মারধর করে। এসময় সন্ত্রাসীরা সাংবাদিকদের ক্যামেরা, মোবাইল ফোন ও মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়।

মেসার্স ন‚র টেডার্সের পক্ষে শিডিউল জমা দিতে আসা মো. ইউনুছ মিয়া জানান, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে শিডিউল জমা দিতে কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলের ম‚লফটকে গেলে আমাদের গাড়ি দেখেই একদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ঝুটভর্তি একটি ভ্যানগাড়ি ম‚লফটকে রেখে পথরোধ করে। পরে আমরা কারখানায় ঢুকতে গেলে সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা আমাদের বাধা প্রদান করে এবং কারখানায় রক্ষিত টেন্ডার বক্স ঘিরে রাখে। সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে শিডিউল জমা না দিতে হুমকি প্রদান করে। একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা আমাদের মারধর করে ধারালো ছোরা দিয়ে গাড়িতে কোপ দেয় এবং ভাংচুর চালায়। সাংবাদিকরা ছবি তুলতে গেলে সন্ত্রাসীরা তাদের উপরও চড়াও হয় এবং এলোপাথারি মারধর করে। একপর্যায়ে সাইদুল মৃধা ও রাজুর নেতৃত্বে সাংবাদিকদের ক্যামেরা, মোবাইল ফোন ও মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়।

এদিকে কারখানার ভেতরে দায়িত্বরত টঙ্গী পশ্চিম থানার পুলিশ সদস্যদের সাহায্য চাইলে তারা রহস্যজনক কারণে নিরব ভ‚মিকা পালন করেন। পরে কাদেরিয়া মিলে শিডিউল জমা দিতে ব্যর্থ হয়ে গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে রক্ষিত বক্সে শিডিউল জমা দিতে গেলে সেখানেও একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী প্রকাশ্যে বাধা প্রদান করে।

এবিষয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের ওসি (অপারেশন) সহিদুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কাদেরিয়া কারখানায় টেন্ডার জমাদানকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসীদের হামলার সময় আমি ছিলাম না। খবর পেয়ে ঘটনাস্থালে গিয়ে পরিস্থিাতি শান্ত করি। তবে হামলার শিকার টেন্ডার জমাদানকারীরা টেন্ডার জমা দিতে পারেনি এটা তাদের ব্যর্থতা। ঘটনার সময় সেখানে এএসআই শাহেদ ও মনজু দায়িত্বে ছিলেন।

ব্যবসায়ীরা জানান, কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের টেন্ডার শিডিউল দ‚র্বৃত্তরা সিন্ডিকেট করে ভাগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। এতে করে সরকার বিপুল পরিমান রাজস্ব হারাবে।

অপরদিকে কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের মহাব্যবস্থাাপক মো. মোজাফফর হোসেন বলেন, সকাল থেকেই শতশত ছেলেরা কারখানার ম‚লফটকের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়। তারা তাদের নিজস্ব লোক ছাড়া অন্য কাউকেই শিডিউল জমা দিতে দেয়নি, যা খুবই দু:খজনক। আমি ছিলাম নিরুপায়। তবে আমার এখানে রক্ষিত বক্সে ৭টি শিডিউল জমা পড়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com