সোমবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:২৫ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
জার্মানি আ:লীগের নতুন সভাপতি সাবু, সা: সম্পাদক আব্বাস গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকা হতে অজ্ঞান পার্টির ০৪(চার) জন গ্রেফতার গাজীপুর হতে মলম/অজ্ঞান পার্টির চক্রের ০২(দুই) জন সদস্য’ গ্রেফতার সাবেক তথ্যমন্ত্রী মিজানুর রহমান শেলী আর নেই এতিমের হকের চামড়ার মুনাফা কার পকেটে? প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গাবতলীতে বখাটেদের রামদা কোপে পিতাকে আহত করায় গ্রেফতারের দাবীতে আ’লীগের মানববন্ধন গাবতলী কাগইল ইউনিয়নে দুস্থদের মাঝে ভিজিএফ চাল বিতরণ ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকার ব্যর্থ এটিএম বুথে নিরাপত্তাকর্মী খুন ২৬টি মোটরসাইকেলসহ ছিনতাই হওয়া কাভার্ডভ্যান উদ্ধার পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি, ভোগান্তিতে যাত্রীরা কাশ্মীর ইস্যুতে সতর্ক করলেন র‌্যাব ডিজি ‘শিডিউল বিপর্যয়ের চক্রে’ ট্রেন বৃষ্টির সঙ্গে ট্রেনের বিলম্ব, সীমাহীন ভোগান্তি ঘরমুখোদের উত্তপ্ত কাশ্মীরে সেনাবাহিনীর গুলিতে নিহত ৬ বঙ্গমাতার ৮৯তম জন্মবার্ষিকী আজ দুই জাপানি নাগরিকের কোমরে মিলল ১২ কেজি স্বর্ণ রাজধানীতে ঈদ জামাতের সময়সূচি নিম্নচাপটি ভারতের ঝাড়খণ্ডে অবস্থান করছে হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হচ্ছে আজ
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যশোরের ৬ আসনের ৩৭ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যশোরের ৬ আসনের ৩৭ প্রার্থীর মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ

Spread the love

মির্জা বদরুজ্জামান টুনু, যশোর ব্যুরো : যশোরের ছয়টি সংসদীয় আসনে ৫৩ জন বৈধ প্রার্থীর মধ্যে ১৩ জন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। বিএনপির তিন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। স্বয়ংক্রিয়ভাবে তাদের মনোনয়ন বাতিল হয়ে গেছে। চ‚ড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় ৩৭ প্রার্থীর নাম রয়েছে। গতকাল সোমবার এসব প্রার্থীর মধ্যে জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক প্রতীক বরাদ্ধ করেন।

যশোর জেলা রিটার্নিং অফিসার মো. আবদুল আওয়াল জানান, দলীয় মনোনয়ন নিয়ে একাধিক প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেন। তারা অনেকে বৈধও হয়েছেন। বিধি অনুযায়ী প্রত্যেক দলের একজন প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। দলের বাকি প্রার্থীর মনোনয়নপত্র স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে গেছে।

যশোর-১ (শার্শা) আসনে আবুল হাসান জহির (বিএনপি) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থী রয়েছেন  ৪ জন। তারা হলেন শেখ আফিল উদ্দিন (আওয়ামী লীগ নৌকা), মফিকুল হাসান তৃপ্তি (বিএনপি ধানের শীষ), মো. বক্তিয়ার রহমান (ইসলামী আন্দোলন হাতপাখা) এবং সাজেদুর রহমান ডাবলু (জাকের পার্টি গোলাপ ফুল)।

যশোর-২ (ঝিকরগাছা-চৌগাছা) আসনে তিনজন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের বর্তমান সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট এটিএম এনামুল হক (ন্যাপ-মোজাফফর) এবং মোহাম্মদ ইসহক (বিএনপি)। এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থী রয়েছেন ৭ জন। তারা হলেন- মেজর জেনারেল (অব.) মো. নাসির উদ্দিন (আওয়ামী লীগ নৌকা), আবু সাঈদ মোহাম্মদ শাহাদাৎ হুসাইন (ধানের শীষ-জামায়াত), বিএম সেলিম রেজা (বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি কাঁঠাল), মো. আলাউদ্দিন (বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল মই ) মো. আসাদুজ্জামান (ইসলামী আন্দোলন হাতপাখা ) এম আসাদুজ্জামান (গণফোরাম উদিয়মান সূর্য ) এবং ফিরোজ শাহ্ (জাতীয় পার্টি লাঙ্গল)।

যশোর-৩ (সদর) আসনে দুজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। তারা হলেন- বিএনপির অ্যাডভোকেট সৈয়দ এএইচ সাবেরুল হক সাবু ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদের মো. রবিউল আলম। এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন, কাজী নাবিল আহমেদ (আওয়ামী লীগ নৌকা), অনিন্দ্য ইসলাম অমিত (বিএনপি ধানের শীষ), মো. জাহাঙ্গীর আলম (জাতীয় পার্টি লাঙ্গল), মনিরুজ্জামান মনির (জাকের পাটি গোলাপ ফুল), সৈয়দ বিপ্লব আজাদ (জেএসডি তারা )ও মারুফ হাসান কাজল ( বিকল্পধারা কুলো)

যশোর-৪ (বাঘারপাড়া-অভয়নগর উপজেলা ও বসুন্দিয়া ইউনিয়ন) আসনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন চারজন। তারা হলেন মতিয়ার রহমান ফারাজী (বিএনপি), তানিয়া রহমান (বিএনপি), মো. আবদুস সালাম (জেএসডি) এবং মো. ইকবাল কবির (বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি)। বিএনপি জোটে সদ্য যোগ দেওয়া একটি দলের প্রার্থী সুকৃতিকুমার মÐল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। প্রতীক বরাদ্দের সময় তার মনোনয়নপত্র স্বয়ংক্রিভাবে বাতিল হয়ে গেছে। এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন রণজিতকুমার রায় (আওয়ামী লীগ নৌকা), টিএস আইয়ুব (বিএনপি ধানের শীষ), মো. জহুরুল হক (জাতীয় পার্টি লাঙ্গল), নাজমুল হুদা (ইসলামী আন্দোলন হাতপাখা), লে. কর্নেল (অব.) এম শাব্বির আহমেদ (বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি কাঁঠাল), নাজিম উদ্দিন আল আজাদ (বিকল্পধারা বাংলাদেশ কুলো), মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ (বাংলাদেশ পিপলস পার্টি আম ) এবং লিটন মোল্যা (জাকের পার্টি গোলাপ ফুল)।

যশোর-৫ (মণিরামপুর) আসনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন স্বতন্ত্র (জামায়াত) প্রার্থী মো. এনামুল হক। বিএনপির দলীয় মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন শহীদ মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন। তিন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেনি। প্রতীক বরাদ্দের সময় তার মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে গেছে। এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন- স্বপন ভট্টাচার্য (আওয়ামী লীগ নৌকা), মুহাম্মদ ওয়াক্কাস (ধানের শীষ-জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম), এমএ হালিম (জাতীয় পার্টি লাঙ্গল), ইবাদুল হক খালাসি (ইসলামী আন্দোলন হাতপাখা ), কামরুল ইসলাম বারী (স্বতন্ত্র-আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ট্রাক), নিজাম উদ্দিন অমিত (জাগপা  হুক্কা ) এবং রবিউল ইসলাম (জাকের পার্টি লাঙ্গল)।

যশোর-৬ (কেশবপুর) আসনে দুজন মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেন। তারা হলেন- বিএনপির আবদুস সামাদ বিশ্বাস ও স্বতন্ত্র (জামায়াত) মোক্তার আলী। এই আসনে বিএনপির অমলেন্দু দাস মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি। প্রতীক বরাদ্দের সময় তার মনোনয়নপত্র স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে গেছে । এই আসনে চ‚ড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন- ইসমাত আরা সাদেক (আওয়ামী লীগ নৌকা), আবুল হোসেন আজাদ (বিএনপি ধানের শীষ), আবু ইউসুফ বিশ্বাস (ইসলামী আন্দোলন হাতপাখা), এ্যাড. মো. মাহবুব আলম বাচ্চু (জাতীয় পার্টি লাঙ্গল) এবং মো. সাইদুজ্জামান (জাকের পার্টি গোলাপ ফুল)।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com