সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ০৮:০৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত গরিবের ৪০ বস্তা চালসহ আ.লীগ নেতা আটক পাসপোর্ট অফিসে কথা বলে ধরা খেলেন চার রোহিঙ্গা নারী কুড়িগ্রামে কনসার্টে অর্ধশতাধিক মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে তিন বছর ধরে ভাতিজিকে ধর্ষণ গ্রীন লাইফ হাসপাতালে শিশুর নাড়িভুড়ি বের করে ফেললেন ডাক্তার শিক্ষার্থীরা বানালো বঙ্গবন্ধুর ৩০০০ বর্গফুট প্রতিকৃতি বগুড়ায় বিএনপি নেতা শাহীনকে হত্যার দায় স্বীকার করলেন পায়েল ৪৩ দিন কারাভোগ শেষে জামিন পেলেন হিরো আলম প্যানেল মেয়রের নির্দেশে বিএনপি নেতা শাহীন খুন! ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ময়মনসিংহের মেয়র টিটু কারাগার থেকে হাসপাতালে বাবর ভাগনির বাসায় খালাকে গণধর্ষণ সিলেট চলচ্চিত্র উৎসব ২৩ এপ্রিল, স্বাগত জানালেন তারকারা ভাইকে অপহরণ, ভাইসহ ৫ জনের যাবজ্জীবন খাগড়াছড়িতে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা পাহাড়ে রঙিন উৎসব জলে ফুল ভাসিয়ে পাহাড়ে বৈসাবি উৎসব শুরু বাঘাইছড়িতে ব্রাশফায়ারের ঘটনায় আরও একজনের মৃত্যু
আজ পয়লা শুভ নববর্ষ বগুড়ায় মৃৎশিল্প কারিগর’রা এখন ব্যস্ত সময় কাঁটাচ্ছেন

আজ পয়লা শুভ নববর্ষ বগুড়ায় মৃৎশিল্প কারিগর’রা এখন ব্যস্ত সময় কাঁটাচ্ছেন

VLUU L100, M100 / Samsung L100, M100

আল আমিন মন্ডল, বগুড়া প্রতিনিধিঃ
আজ রবিবার পয়লা শুভ নববর্ষ। গ্রাম বাংলার পল্লী এলাকায় বসবে পয়লা বৈশাখী মেলা। ছোট বড় সবাই কিনবে হস্তশিল্প ও মাটির তৈরী জিনিসপত্র। এমনি আশায় বুকবেঁধে প্রতিদিন মাটি দিয়ে তৈরী করছে হরেক রকমের জিনিসপত্র। ফলে মৃৎশিল্প ‘কারিগর’রা এখন ব্যস্ত সময় কাঁটাচ্ছেন। নববর্ষ উৎসব উপলক্ষে তাঁরা মাটি দিয়ে তৈরী করছে পান্তা ভাত খাওয়া’র জন্য মাটির প্লেট ও বাটি। বেশী ভাগ শিল্পী এখন মাটির তৈরী জিনিসপত্রে রং লাগাতে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন।
জানাযায়, মৃৎশিল্পে’র ঐতিহ্যকে ধরে রাখতে দ‚ীর্ঘদিন হলে বগুড়ার গাবতলী সোনারায়ের বামুনিয়া পালপাড়া গ্রামের ৫শতাধিক লোক এখনও মৃৎশিল্পের কাজ করে আসছে। এবছরে বাংলা নববর্ষের মেলা উপলক্ষে তাঁরা মাটির তৈরী প্লেট, খেলনা, হাতি, ঘোঁড়া, বাঘ, মাছ, আম, কাঁঠাল, পুতুল, ব্যাংক, খুটি ও মালসা তৈরী করছে। প্রথমে মাটি সেনে হাত বা মেশিন দিয়ে তৈরী করা হয় এসব মাটির তৈরী জিনিসপত্র। এরপর রোঁদে শুকানোর পর রং লাগিয়ে পোড়া দিয়ে বাজারে অথবা মেলায় বিক্রির জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। মৃৎশিল্পকে ধরে রাখতে ৫শতাধিক লোক এখনো কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। স্বচ্ছলভাবে জীবন না কাটলেও বাপ-দাদার শিল্পকে ধরে রাখতে তাদের প্রচেষ্টার জেন অন্তনেই। তবুও তাঁরা দিনরাঁত কাজ করছেন। তৈরী করছেন মাটির জিনিসপত্র। মৃৎশিল্প কারিগর শুশিল কুমার জানান, আমাদের ‘পালপাড়া গ্রাম’ যেন মৃৎশিল্পের শহর। মৃৎশিল্প কারিগর সাঁধন ও রতন জানান, এখন এই শিল্প মুখ থবুরে পড়েছে। মৃৎশিল্প এক সময় লাভবান শিল্প হিসেবে গন্য করা হতো। এখন লাভ নেই। অম‚ল্য ও পরেশ জানান, আর্থিক সংকট থাকলেও আমরা এ শিল্পকে ধরে রাখবো। নারী শিল্পী প্রমিলা, কান্তিবালা ও লক্ষী জানান, দিনরাঁত পরিশ্রম করে আমরা মাটির দিয়ে জিনিসপত্র তৈরী করছি। এযেন আমাদের জীবন সংগ্রাম। তবুও বাংলা নববর্ষ’সহ বেশ কিছু উৎসবে মেলা বসলে’ই মাটির জিনিসপত্রের কদর বেশ বেড়ে যায়। সে সময়ে আমাদের জিনিসপত্র বিক্রি বেড়ে যায়। তখন দামটা ভাল পাওয়া যায় মনটাও ভাল থাকে। আশাকরছি এবারের বাংলা নববর্ষ উৎসবের দিবস (দিন) ভাল কাঁটবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com