বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরনাম
বগুড়ার গাবতলী কলাকোপা আতপজান মেমোরিয়াল হাইস্কুলের স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচিতদের পরিচিতি ও সংবর্ধনা প্রদান ভোট থেকে বিরত থাকুন…জেলা যুবদলের সভাপতি সিপার গাবতলী থানা ও পৌর যুবদল ছাত্রদলের যৌথ মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত টঙ্গীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী উদযাপন জনগণেরতোপেরমুখে মেয়র গাজীপুরসিটিতেবিনা নোটিশে উচ্ছেদ অভিযানবন্ধরাখার দাবী টঙ্গীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্ম বার্ষিকী উদযাপন দুর্নীতির ঋতু বদলাক ম্যান ইউকে বিদায় করে শেষ চারে উলভারহ্যাম্পটন চতুর্থ পর্বের আগে তিনদিনের বিরতি প্রিমিয়ার লিগে খলনায়ক ব্রেনটনকে আটকানোর চেষ্টা করেছিলেন এই মহানায়ক পশ্চিমা দেশে মুসলিমদের বিরুদ্ধে যত হামলা বিএনপিতে বহিষ্কার মৌসুম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বগুড়ার গাবতলী দক্ষিনপাড়া’য় নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে গনসংযোগ বগুড়ার গাবতলী লাংলুহাটে বিরাজ উদ্দিনের ৮তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত খোকা থেকে বঙ্গবন্ধু বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন অস্ত্র আইনে পরিবর্তন আনবে নিউজিল্যান্ড: প্রধানমন্ত্রী স্ত্রী-সন্তানের অবহেলায় রশিতে বাঁধা বিসিএস ক্যাডার বিজ্ঞানীর জীবন গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব প্রত্যাহার দাবিতে মানববন্ধন কলকাতার নতুন ছবিতে নুসরাত ফারিয়া নগ্ন ছবি দিয়ে নারী দিবসের শুভেচ্ছা জানালেন বিদ্যা
সুবিধা বঞ্চিত মানুষের সুবিধা নিশ্চিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয়: প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

সুবিধা বঞ্চিত মানুষের সুবিধা নিশ্চিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করার দৃঢ় প্রত্যয়: প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য

যশোর ব্যুরো: আওয়ামী লীগের ইশতেহারের মূল প্রতিপাদ্য ‘গ্রাম হবে শহর।’ গ্রামের মানুষ পাবে শহরের সুযোগ সুবিধা। শহরের আদলে গ্রামে উন্নত সেবা নিশ্চিতে কাজ করবে স্থানীয় সরকার, পল­ী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়াকে সৌভাগ্য বলে মন্তব্য করেছেন নবনিযুক্ত প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য। সোমবার এক সাক্ষাৎকারে এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে মন্ত্রীত্বের স্বাদ পাওয়ার অনুভ‚তি, দেশের সার্বিক উন্নয়নে অর্পিত দায়িত্ব পালন ও যশোরের পিছিয়ে পড়া খাতগুলোকে এগিয়ে নিতে নানা পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন।

স্বপন ভট্টাচায্য বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গ্রামের মানুষ শহরের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতের যে অঙ্গীকার করেছেন। সেই চ্যালেঞ্জ বাস্তবায়নে অধিকাংশ কাজ করবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়। এই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার উপর আস্থা রেখেছেন, এটা আমার সৌভাগ্য। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আস্থার প্রতিফলন ঘটাতে চাই। তিনি বলেন, গ্রামের মানুষকে শহরের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিতে অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কাজ করব। গ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন তরান্বিত করা হবে। মান সম্মত শিক্ষা নিশ্চিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অবকাঠামো উন্নয়নে গুরুত্ব দিতে চাই। গ্রামের মানুষের সুপেয় পানি সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে। স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, আমি শুধু যশোরের প্রতিমন্ত্রী নই, সারাদেশের মানুষের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে অর্পিত দায়িত্ব পালন করবো। তবে যশোরের মানুষ হিসেবে, এই অঞ্চলের পিছিয়ে পড়া খাতগুলোকে এগিয়ে নিতে অগ্রাধিকার দিবো। এক্ষেত্রে স্থানীয় সংসদ সদস্য, যশোরের সচেতন মহল ও সাংবাদিকদের সঙ্গেও আলোচনা করবো। সবার মতামতের ভিত্তিতে পিছিয়ে পড়া খাতকে এগিয়ে নিতে উন্নয়ন করা হবে। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আপনার অনুভ‚তি কি জানতে চাইলে স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, প্রতিমন্ত্রী হওয়ায় আমি খুব খুশি। আমার যশোরবাসীও খুশি হয়েছে। প্রত্যেক রাজনীতিবিদ ম‚ল্যায়ন চাই। আমারও প্রত্যাশা ছিল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ম‚ল্যায়ন করেছেন। এজন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। একই সঙ্গে আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করবো। সারাদেশের মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি। কাজের মাধ্যমে যোগ্যতার সাক্ষর রাখতে চাই। এজন্য যশোরবাসীসহ সকলের দোয়া ও সহযোগিতা কামনা করছি। স্বপন ভট্টাচার্য্য : ১৯৫২ সালের ২৭ফেব্রুয়ারি উপজেলার পাড়ালা গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত ব্রাহ্মণ পরিবারের জন্ম গ্রহন করেন। বাবা মৃত সুধীর ভট্টাচার্য্য ও মা মৃত ঊষা রানী ভট্টাচার্য্য’র চার ছেলে ও তিন মেয়ের মধ্যে মেঝ ছেলে তিনি। স্বপন ভট্টাচার্য্য ছাত্রজীবনে ছাত্র ইউনিয়নের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকলেও পরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে জড়িত হন। তার বড় ভাই পীযুষকান্তি ভট্টাচার্য্য আওয়ামী লীগের সভাপতিমÐলীর সদস্য। ২০০৯ সালে মণিরামপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন স্বপন ভট্টাচার্য্য। উপজেলাবাসীর কাছে নিজেকে একজন পরিচ্ছন্ন ও সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হন। রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি স্বরূপ শ্রেষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে কলস প্রতীকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এ্যাড. খান টিপু সুলতানকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সর্বশেষ ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন স্বপন ভট্টাচার্য্য। দীর্ঘ ৩১ বছর পর মণিরামপুর থেকে স্বপন ভট্টাচার্য্য এলজিআরডি (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়) মন্ত্রালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com