বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরনাম
অসুস্থ্য লতিফ সিদ্দিকী: মেডিকেল বোর্ড গঠন গাবতলীতে বিএনপিনেতা খোকার নামাজে জানাযা তালতলীতে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালিত গাজীপুর-২ আসনে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী সালাউদ্দিন সরকারের জনসংযোগ গাজীপুর-২ আসনে খাদিজা রাসেলের নির্বাচনী গণসংযোগ বিপুল পরিমাণ ফেন্সিডিলসহ ট্রাক উদ্ধার টঙ্গীতে মাদক চক্রের প্রধান ইমরানসহ গ্রেফতার-৬ টঙ্গীতে ঝিড়ি ঝিড়ি বৃষ্টির মধ্যে নৌকার প্রচারণা চালাছে টঙ্গী ছাত্রলীগ হামলা চালিয়ে হাতপাখার গণজাগরণে বাধাগ্রস্ত করা যাবে না খুলনায় চরমোনাই পীর শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকলেই ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মীদের ভাগ্য পরিবর্তন ঘটবে ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর দেবপুরে স্ত্রী ও ২ সন্তানকে হত্যা করে যুবকের আত্মহত্যা সারাদেশে সূর্য উঠেনি! সারাদিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্ট কুমিল্লায় ৩৩ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন কুমিল্লায় আসছেন ফখরুল, রব কাদের সিদ্দিকী গাইবান্ধা জেলা পুলিশের কল্যাণ ও মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত গাইবান্ধায় গুচ্ছ গ্রামে বিদুত্যয়নের উদ্বোধন করলেন জেলা প্রশাসক সেবাস্টিন রেমা লোহাগড়ায় দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে বৃত্তি প্রদান রুহের মাগফিরাত কামনা ঝিনাইগাতীতে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত-১ ইন্দুরকানীতে নব বিবাহীত যুবকের বিদ্যুৎ স্পষ্ট হয়ে মৃত্যু পাইকগাছায় আমন চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন
পারমাণবিক চুক্তি চায় সৌদি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে

পারমাণবিক চুক্তি চায় সৌদি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাংবাদিক জামাল খাসোগি খুনের সঙ্গে সৌদি যুবরাজের সম্পর্কের বিষয়টি তদন্তের আগে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা আরেকটি রহস্যের কিনারা করতে ব্যস্ত ছিল। সৌদি যুবরাজ কি পারমাণবিক বোমা তৈরির প্রস্তুতি নিয়ে রাখছেন? নিউইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ৮০ বিলিয়ন বা ৮ হাজার কোটি মার্কিন ডলারের চুক্তির জন্য দৌড়ঝাঁপ করছিলেন যুবরাজ। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কাছে পারমাণবিক স্থাপনার নকশা কিনতে চাইছিলেন।

এ চুক্তির বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। বিষয়টির সঙ্গে যুক্ত সৌদি ও মার্কিন কর্মকর্তাদের মতে, সৌদি যেখানে কম খরচে বাইরে থেকে পারমাণবিক জ্বালানি কিনতে পারে, সেখানে নিজস্ব জ্বালানি উৎপাদনে যাওয়ার রহস্য কী? ওয়াশিংটন উদ্বেগে পড়ে ভাবতে থাকে, যুবরাজের অন্য কোনো মতলব আছে কি না। নিজস্ব পারমাণবিক স্থাপনায় অস্ত্র তৈরি করতে পারে সৌদি—এ সংশয়ে পড়ে যায় যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৫ সালে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তিতে সই করার আগে ইরান এটাই করেছিল।

চুক্তির বিষয়ে কথাবার্তা এগোনোর মধ্যেই যুবরাজ মোহাম্মদ ঘোষণা দেন, ‘ইরান যদি পারমাণবিক বোমা তৈরি করে, আমরাও তাদের পথেই হাঁটব।’ ইরানকে চরম শত্রু হিসেবেই দেখে সৌদি। ট্রাম্প প্রশাসনকে বোঝানো হয়, পারমাণবিক চুল্লি তৈরি করা হলে জাতিসংঘের কোনো পর্যবেক্ষককে তা দেখাতে সম্মত হবে না সৌদি। এ থেকে সন্দেহ আরও বেড়ে যায়।

সৌদির সঙ্গে গোপন চুক্তি নিয়ে গত মার্চ মাসে কংগ্রেসে প্রশ্ন করা হলে যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানিমন্ত্রী রিক পেরি তা কৌশলে এড়িয়ে যান। সৌদির সঙ্গে ওই চুক্তির বর্তমান পরিস্থিতি নিয়েও পরিষ্কারভাবে কিছু বলছে না ট্রাম্প প্রশাসন।

এখন খাসোগি হত্যার পর পারমাণবিক জ্বালানি ও প্রযুক্তি দিয়ে সৌদি যুবরাজকে কতটা বিশ্বাস করা যায়, সে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এ ধরনের জ্বালানি সামরিক কাজে ব্যবহার করার আশঙ্কা থেকেই যায়।

তবে যুক্তরাষ্ট্র কি সৌদির কাছে এই প্রযুক্তি বিক্রি করবে না? যুক্তরাষ্ট্রের কাছে না পেলে সৌদি তখন রাশিয়া, চীন বা দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে যেতে পারে।

সৌদির জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদি সরকারের পক্ষ থেকে বারবার নিশ্চিত করে বলা হয়েছে তাদের পারমাণবিক কর্মসূচি বেসামরিক ও শান্তিপূর্ণ উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যায়। আর্থসামাজিক উন্নয়নে এ প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকে মধ্যপ্রাচ্যকে সব ধরনের পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 jonotarbangla.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com